kalchitro
Bongosoft Ltd.
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯

গুঠিয়া মসজিদ: এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ জামে মসজিদ 


কালচিত্র | আলমগীর হোসেন প্রকাশিত: জুলাই ২৫, ২০২২, ১২:৩৭ এএম গুঠিয়া মসজিদ: এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ জামে মসজিদ 

বাংলাদেশের যে কয়েকটি সুন্দর এবং দৃষ্টিনন্দন মসজিদ রয়েছে, তার মধ্যে বরিশালের গুঠিয়া মসজিদ অন্যতম। এটি এশিয়া মহাদেশের অন্যতম বৃহৎ জামে সমজিদ। গুঠিয়া মসজিদটি বরিশাল বিভাগের উজিরপুর থানার গুঠিয়া ইউনিয়নের চাংগুরিয়া গ্রামে অবস্থিত।

এই মসজিদটি গুঠিয়া নামে পরিচিতি পেলেও এর প্রকৃত নাম বাইতুল আমান মসজিদ ও ঈদগাহ কমপ্লেক্স। মসজিদটির প্রতিষ্ঠাতা এস.সরফুদ্দিন আহম্মেদ সান্টু। ২০০৩ সালে মসজিদটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় এবং ২০০৬ সালে শেষ হয়।

মসজিদটির প্রধান ফটকে ঢুকেই বামদিকে চোখে পড়বে একটি স্তম্ভ। মুলত প্রথমে মসজিদটি এখানেই ছিল তাই এই জায়গাটিকে সংরক্ষিত করে রাখা হয়েছে। এছাড়া এই মসজিদ কমপ্লেক্সে কাবা শরীফ,আরাফাত ময়দান, জাবালে রহমত, জাবালে নূও, নবীজীর জন্মস্থান, মা হাওয়া এর কবরস্থান, খলিফাদের কবরস্থানসহ মক্কা মদীনার বিভিন্ন স্থানের মাটি এখানে সংরক্ষণ করা আছে। 

অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন এই মসজিদটির ভেতরে রয়েছে সুদৃশ্য মিনার, প্রায় ২০ হাজার লোকের ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন ঈদগাহ ময়দান, ডাকবাংলো, সান বাঁধানো পুকুর, গাড়ি পার্কিং এর জায়গা, লেক এবং ফুলের বাগান। মসজিদের মিনারটির উচ্চতা প্রায় ১৯০ ফুট। নির্মাণশৈলীতে আধুনিকতার ছাপ রয়েছে।

এর নির্মাণে ব্যয় হয়েছে প্রায় ২০ কোটি টাকা। এই মসজিদে একসাথে প্রায় ১,৫০০ মানুষ নামাজ আদায় করতে পারে। মহিলাদের নামাজ আদায়ের জন্য রয়েছে আলাদা ব্যবস্থা।

অত্যন্ত সুন্দর এই মসজিদটি দেখতে এবং নামাজ আদায় করতে প্রতিদিন শত শত মানুষের আগমন ঘটে। মসজিদটিকে ঘিরে আশেপাশে অনেক দোকানপাট ও প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। 

যারা ঢাকা থেকে গুঠিয়া মসজিদটি দেখতে আসার জন্য আগ্রহী, তারা বাস অথবা লঞ্চে করে বরিশাল সদর আসতে হবে। তারপর নথুল্লাবাদ বাস স্টেশন থেকে বাস অথবা টেম্পুতে করে গুঠিয়া মসজিদ আসতে পারেন। ঢাকা থেকে বরিশাল লঞ্চ ভাড়া পড়বে ৬০০-১,৪০০ টাকা। সোফা সিট ৬০০ টাকা, কেবিন (নন এসি) ১,০০০ টাকা এবং এসি ১,৪০০ টাকা। এছাড়া বাস ভাড়া ৫০০-৮০০ টাকা পর্যন্ত। বরিশাল শহর হতে গুঠিয়ার দূরত্ব মাত্র ১১ কিলোমিটার। নথুল্লাবাদ স্টেশন থেকে ভাড়া বাসযোগে ৩০ টাকা এবং টেম্পুতে ৩৫-৪০ টাকা।

থাকার জন্য বরিশাল শহরে অনেক হোটেল রয়েছে। একটু বেশি বাজেটের হোটেলগুলোর মধ্যে এরিনা ইন্টারন্যাশনাল, বরিশাল গ্র্যান্ড হোটেল, রোজ হোটেল অন্যতম। এছাড়াও কম বাজেটের অনেক হোটেল রয়েছে। খাবার হোটেল এর মধ্যে অন্যতম আকাশ হোটেল, ঘরোয়া, রয়েল। এছাড়াও আরও অনেক ভালো মানের খাবার হোটেল বরিশালে রয়েছে।

Side banner