kalchitro
Bongosoft Ltd.
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯

জেমস ওয়েবের লেন্সে বৃহস্পতির চোখধাঁধানো ছবি


কালচিত্র | কালচিত্র ডেস্ক প্রকাশিত: আগস্ট ২৪, ২০২২, ১১:২৬ পিএম জেমস ওয়েবের লেন্সে বৃহস্পতির চোখধাঁধানো ছবি

আবার চমকে দেয়ার মতো মহাকাশের ছবি। আবারও সেই শক্তিশালী টেলিস্কোপ জেমস ওয়েব। এবার ধরা পড়ল সৌরজগতের সর্ববৃহৎ গ্রহ বৃহস্পতি। তার নীল-সবুজ রঙের মিশ্রণ চমকে দিয়েছে সকলকেই। নাসার তরফে প্রকাশ করা হয়েছে এই ছবিটি। ছবিতে উত্তর ও দক্ষিণ মেরুর বর্ণিল আলোকচ্ছটা, ঘূর্ণায়মান মেরুর চিত্রও স্পষ্টভাবে প্রকাশ পেয়েছে।

নতুন ছবিতে বৃহস্পতিকে একেবারেই নতুন রূপে দেখা যাচ্ছে। নাসার বিজ্ঞানীরা এই দৃশ্যকে অবিশ্বাস্য বলে মন্তব্য করেছেন। ২৭ জুলাইয়ে জেসম ওয়েব টেলিস্কোপ দিয়ে বৃহস্পতি গ্রহের ছবিগুলো তোলা হয়। ধরা পরেছে বৃহস্পতির উত্তর এবং দক্ষিণ মেরুর বর্ণিল আলোকচ্ছটা। ঘূর্ণায়মান মেরুর চিত্রও স্পষ্টভাবে প্রকাশ পেয়েছে ছবিতে।
এছাড়া ছবিতে দেখা যাচ্ছে, বৃহস্পতির বুকে ক্ষতের মতো জ্বলজ্বলে বিশালকায় লাল দাগ, যা একটি ঝড়। আকার এতোটাই বড়, যা পুরো পৃথিবীকেই গ্রাস করতে পারে। ছবিতে সেই গ্রেট রেড স্পটের আশপাশে দেখা যাচ্ছে অসংখ্য ছোট ঝড়ের চিহ্নও।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা-'নাসা'র প্রকাশিত ছবিতে বৃহস্পতিকে ঘিরে থাকা উজ্জ্বল বলয়ের নাটকীয় রূপ ফুট উঠেছে। গ্যালাক্সিতে ছোট্ট দুটি চাঁদকেও উজ্জ্বল দেখা গেছে। বৃহস্পতির অদেখা দৃশ্য অবিশ্বাস্য বলে আখ্যা দিয়েছেন, নাসার বিজ্ঞানীরা।

ছবিগুলো তোলা হয়েছে নিয়ার-ইনফ্রারেড ক্যামেরা ব্যবহারে। যাতে তিনটি বিশেষ ইনফ্রারেড ফিল্টার আছে। এতে বৃহস্পতির বিস্তারিত এতো স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে। তবে এটিই প্রথম নয়, এর আগেও মহাবিশ্বের রঙ্গিন ছবি তুলে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলো জেমস ওয়েব।

নাসার নেতৃত্বে ইউরোপীয়ান ও কানাডিয়ান স্পেস এজেন্সির সঙ্গে যৌথভাবে- এক হাজার কোটি ডলারে তৈরি জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ। গত ২৫ ডিসেম্বর, উৎক্ষেপণের পর বর্তমানে এটি আছে পৃথিবী থেকে দশ লাখ মাইল দূরে। বিজ্ঞানীদের আশা, মহাবিশ্বের জন্মের ১০ কোটি থেকে ২৫ কোটি বছর পর কেমন ছিল মহাবিশ্ব, সেটিই জানার চেষ্টা করবে জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ।

 

Side banner